শনিবার, ডিসেম্বর ২, ২০২৩
১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা নেই: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী

ঘূর্ণিঝড় মোখা আজ রোববার বেলা ৩টার মধ্যে বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করবে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান। সচিবালয়ে আজ দুপুরে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

এনামুর রহমান বলেন, ঘূর্ণিঝড় মোখার অগ্রভাগ সকাল ছয়টা থেকে কক্সবাজার, টেকনাফ, সেন্ট মার্টিন ও মিয়ানমারের সিটুয়ে উপকূল অতিক্রম শুরু করে। এখন ঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬৮ কিলোমিটার। সকাল থেকে ভাটা শুরু হয়েছে। তাই জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা নেই বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন পর্যন্ত ঝড়টি বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের উপকূল অতিক্রম করছে। তবে কেন্দ্রের ৭৮ কিলোমিটারের মধ্যে ঝড়ের গতিবেগ এখনো ২০০ থেকে ২১৫ কিলোমিটার। এ গতিবেগে কেন্দ্রটি উপকূল অতিক্রম করলে কিছুটা ক্ষয়ক্ষতি হবে।

সরকার সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে জানিয়ে এনামুর রহমান বলেন, সেন্ট মার্টিনে ৩৭টি আশ্রয়কেন্দ্রে সাড়ে ৮ হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন। এ ছাড়া কক্সবাজারে ৫৭৬টি কেন্দ্রে ২ লাখের বেশি, চট্টগ্রামে ১ হাজার ২৪ আশ্রয়কেন্দ্রে ৫ লাখ মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

গতকাল শনিবার ‘সুপার সাইক্লোন’-এর কথা বলে পরে কেন পরিবর্তন করেছিলেন—এমন প্রশ্নের জবাবে এনামুর রহমান বলেন, ‘তখন পূর্বাভাস দেখে সুপার সাইক্লোনের কথা বলা হয়েছিল। পরে বাতাসের গতিবেগ দেখে প্রত্যাহার করা হয়। সুপার সাইক্লোন হলে তখন বাতাসের গতিবেগ থাকে ২২০ কিলোমিটারের মধ্যে, সেটা হয়নি।’

দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে এবারই প্রস্তুতি সবচেয়ে ভালো ছিল বলে দাবি করেন প্রতিমন্ত্রী। গাফিলতি বা ভুল ছিল না বলেও দাবি করেন তিনি।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন